Homeinternational newsইরানে হামলা করবে ইসরাইল : হুঙ্কার
52 Views No Comment
সকল আপডেট ফেসবুকে পেতে আমাদের অফিশিয়াল ফ্যান পেজে লাইক দিন

ইরানে হামলা করবে ইসরাইল : হুঙ্কার

ইরান যাতে কখনো পারমাণবিক শক্তি
অজর্ন করতে না পারে সে লক্ষ্যে
দেশটিতে সামরিক অভিযান চালাতে
প্রস্তুত ইসরাইল। জাপান সফরে থাকা
দেশটির গোয়েন্দা কার্যক্রমবিষয়ক
মন্ত্রী গতকাল এ কথা জানিয়েছেন। গত ১৩
অক্টোবর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড
ট্রাম্প ইরানের সাথে ছয় বিশ্বশক্তির
পারমাণবিক চুক্তিকে স্বীকৃতি না দেয়ার
ঘোষণা দিয়েছেন। এর ফলে ইরানের ওপর
নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে
কি না সে বিষয়ে আলোচনা শুরু হবে
মার্কিন কংগ্রেসে।
জাপান সফরত ইসরাইলি মন্ত্রী ইসরা্ইল
কাৎজ জানিয়েছেন, তিনি আশা করেন
ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরান বিষয়ে আরো কঠোর
ব্যবস্থা নেবেন। কাৎজ বলেন, ‘মার্কিন
প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নেতৃত্বে
আন্তর্জাতিক চেষ্টা যদি ইরানের
পারমাণবিক শক্তি অর্জনের পথ রুখতে না
পারে তাহলে ইসরাইল নিজেই এর বিরুদ্ধে
সামরিক পদক্ষেপ নেবে। ইরান যাতে
কখনোই পারমাণবিক শক্তি অর্জন করতে
না পারে সে বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে’।
২০১৫ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক
ওবামার সাথে দীর্ঘ কূটনৈতিক প্রচেষ্টার
পর যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, চীন, ব্রিটেন,
ফ্রান্স ও জার্মানির সাথে পারমাণবিক
চুক্তি করে ইরান। চুক্তি অনুযায়ী দেশটি
তাদের পারমাণবিক অস্ত্র তৈরির কাজ
স্থগিত করে।
বিনিময়ে দেশটির ওপর থেকে উঠিয়ে
নেয়া হয় আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা।
ইসরাইল প্রতিষ্ঠার জন্য গর্বিত
ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী
ইন্ডিপেন্ডেন্ট
ইসরাইল প্রতিষ্ঠায় ব্রিটেনের ভূমিকা
থাকার কারণে গৌরব প্রকাশ করে ব্রিটিশ
প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে বলেছেন,
‘ইসরাইল রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় আমরা যে
ভূমিকা পালন করেছি সেজন্য আমরা
গর্ববোধ করি এবং আমরা গর্বভরে সে
ঘটনার শতবর্ষ উদযাপন করব।’ বুধবার ব্রিটিশ
পার্লামেন্টে প্রধানমন্ত্রীর জন্য
নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে তিনি এ কথা
বলেন। থেরেসা মে বেলফোর ঘোষণার
শতবর্ষ পূর্তি উপলে এ বক্তব্য দিয়েছেন।
১৯১৭ সালের ২ নভেম্বর তৎকালীন ব্রিটিশ
পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেমস আর্থার বেলফোর
ফিলিস্তিনি ভূখে ইহুদিদের জন্য কথিত
আবাসভূমি বা রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে
ব্রিটেনের অবস্থানের কথা ঘোষণা করেন।
ওই ঘোষণা ‘বেলফোর ঘোষণা’ নামে
পরিচিত। ওই ঘোষণা অনুযায়ী ব্রিটেন
ফিলিস্তিনে ইহুদি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায়
সর্বাত্মক প্রচেষ্টার অঙ্গীকার করে।
ফিলিস্তিন তখন ছিল ব্রিটিশ উপনিবেশ।
বেলফোর ঘোষণার ৩১ বছর পর ১৯৪৮ সালে
যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রিটেনের প্রত্য
পৃষ্ঠপোষকতায় জবরদস্তিমূলকভাবে
ফিলিস্তিনি ভূখে আত্মপ্রকাশ করে ইহুদি
রাষ্ট্র ইসরাইল। ব্রিটেন ও তার
সহযোগীদের পৃষ্ঠপোষকতায় ৫৩১টি
ফিলিস্তিনি গ্রাম ও শহর উচ্ছেদ করে
ইহুদিদের জন্য স্বতন্ত্র রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা
করা হয়।
এরপর থেকে যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রিটেনের
সহযোগিতায় অব্যাহতভাবে ফিলিস্তিনি
ভূখ অধিগ্রহণ করে যাচ্ছে ইসরাইল।
১৯৪৮ সালে বেলফোর ঘোষণা বাস্তবায়িত
হওয়ার পর থেকে প্রতি বছর ২ নভেম্বরকে
কালো দিবস হিসেবে পালন করে আসছেন
ফিলিস্তিনি জনগণসহ বিশ্বের মুসলমানরা।
এ সম্পর্কে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী মে আরো
বলেন, ‘বেলফোর ঘোষণার ব্যাপারে কিছু
মানুষ যে স্পর্শকাতরতা দেখায় সে
ব্যাপারে আমাদের সচেতন থাকতে হবে।
আমরা জানি, এ ব্যাপারে আমাদের আরো
অনেক কর্তব্য রয়ে গেছে।’

3 weeks ago (October 27, 2017) FavoriteLoadingAdd to favorites

About Author (18) 53 Views

author

This user may not interusted to share anything with others

Leave a Reply

You must be Logged in to post comment.

Related Posts


All Rights Reserved
© 2010 - 2017 Trick-Bd.CoM